শেরপুর প্রতিদিন ডট কম

Home ময়মনসিংহ বিভাগ শেরপুর জেলা উপজেলা পরিষদ নির্বাচন ॥ নকলা ও নালিতাবাড়ীতে নির্বাচিত হলেন যারা
উপজেলা পরিষদ নির্বাচন ॥ নকলা ও নালিতাবাড়ীতে নির্বাচিত হলেন যারা

উপজেলা পরিষদ নির্বাচন ॥ নকলা ও নালিতাবাড়ীতে নির্বাচিত হলেন যারা

দ্বিতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত শেরপুরের নকলা ও নালিতাবাড়ীতে শান্তিপূর্ণ ভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২১ মে মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত চলে ভোটগ্রহণ।
নকলা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে এ.কে.এম মাহবুবুল আলম সোহাগ এবং ভাইস চেয়ারম্যান পদে আবু হামযা কনক ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে লাকী আক্তার বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। ২১ মে মঙ্গলবার রাতে এই ফলাফল ঘোষণা করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা সাদিয়া উম্মুল বানিন।
ঘোষিত ফলাফল অনুযায়ী, উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ.কে.এম মাহবুবুল আলম সোহাগ দোয়াত-কলম প্রতীক নিয়ে ২০ হাজার ৬৫৪ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মো. মোকশেদুল হক শিবলু কাপ-পিরিচ প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১৯ হাজার ২১৩ ভোট।
চেয়ারম্যান পদে অন্যান্যদের মধ্যে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. শফিকুল ইসলাম জিন্নাহ আনারস প্রতীকে ১৬ হাজার ১০৭ ভোট, উপজেলা পরিষদের দুইবারের ভাইস চেয়ারম্যান মুহাম্মদ সারোয়ার আলম তালুকদার ঘোড়া প্রতীকে ১৩ হাজার ১৬ ভোট ও উপজেলা পরিষদের দুইবারের চেয়ারম্যান শাহ্ মোঃ বোরহান উদ্দিন মোটর সাইকেল প্রতীকে ১১ হাজার ৬৯৫ ভোট পেয়েছেন।
এছাড়া ভাইস চেয়ারম্যান পদে উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক আবু হামযা কনক চশমা প্রতীকে ৩১ হাজার ১৯৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোশাররফ হোসেন সরকার বাবু পেয়েছেন ২৭ হাজার ১৪২ ভোট। আর মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রজাপতি প্রতীকে বিপুল ভোটের ব্যবধানে বিজয়ী হয়েছেন লাকী আক্তার।
নালিতাবাড়ী ॥ দ্বিতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নালিতাবাড়ী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে ঘোড়া প্রতীকে ৬১ হাজার ৭৯৬ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হাজি মোশারফ হোসেন। আনারস প্রতীকে ৩৯ হাজার ৮০৭ ভোট পেয়ে নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বর্তমান চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোকছেদুর রহমান লেবু। প্রধান এ দুই প্রতিদ্বন্দ্বীতাকারীর ভোটের ব্যবধান ২১ হাজার ৯৮৯ ভোট।
এছাড়াও অপর দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম দোয়াত-কলম প্রতীকে পেয়েছেন ১ হাজার ৪৪৫ ভোট। উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আছমত আরা আছমা মোটরসাইকেল প্রতীকে পেয়েছেন ৮শ ভোট।
অন্যদিকে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে বর্তমান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আশুরা বেগম কলসী প্রতীকে ৬৮ হাজার ৮৫১ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। ফুটবল প্রতীকে ১৪ হাজার ২৫৮ ভোট পেয়ে নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হয়েছেন নোহেলিকা দিব্রা। এছাড়াও পদ্মফুল প্রতীকে ১৩ হাজার ১৬৩ ভোট পেয়েছেন ক্লোডিয়া নকরেক কেয়া এবং হাঁস প্রতীকে ৪ হাজার ৪১৬ ভোট পেয়েছেন রাজিয়া সুলতানা।
ভাইস চেয়ারম্যান পদে টিউবওয়েল প্রতীকে ৩৯ হাজার ৭৩৮ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন শেখ ফরিদ। চশমা প্রতীকে মেহেদী হাসান রাজন ৩৩ হাজার ২৫ ভোট পেয়ে নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হয়েছেন। অপর দুই প্রার্থী বাবুল হোসেন তালা প্রতীকে পেয়েছেন ১৫ হাজার ৮৯৯ ভোট এবং টিয়াপাখি প্রতীকে ইসমাইল হোসেন পেয়েছেন ১২ হাজার ৪৩ ভোট।


LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

20 + eight =