আওয়ামী লীগ কমিটিতে বড় পরিবর্তনের সম্ভাবনা কম, ভোটের পর আগাম সম্মেলন

1

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ২২তম জাতীয় সম্মেলন শনিবার (২৪ ডিসেম্বর)। ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে এ সম্মেলন হবে। এরইমধ্যে মঞ্চ তৈরিসহ সব প্রস্তুতি শেষপর্যায়ে। দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচন সামনে রেখে এ সম্মেলনকে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলছেন দলটির নেতারা।

তবে এ সম্মেলন থেকে যে কমিটি গঠন করা হবে, তাতে বড় পরিবর্তন না আসার সম্ভাবনা বেশি বলে জানিয়েছেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। পাশাপাশি জাতীয় নির্বাচনের পর আগামী সম্মেলন হতে পারে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

তবে এবারের সম্মেলন ঐতিহাসিক সম্মেলন হবে এবং নেতাকর্মীদের ঢল নামবে বলে মনে করছেন টানা দুই মেয়াদে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করা এ নেতা।

বৃহস্পতিবার (২২ ডিসেম্বর) আওয়ামী লীগের ২২তম জাতীয় সম্মেলনের মাঠ ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যান পরিদর্শনের আগে তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এ সম্মেলনে যে কমিটি হবে, সেখানে তেমন একটা পরিবর্তন হওয়ার সম্ভাবনা কম। নির্বাচনের পর আগাম সম্মেলন হতে পারে। তখন একটা মেজর হিসাব হতে পারে। আপাতত বড় কোনো পরিবর্তনের ব্যাপারে ভাবছি না।’

তিনি বলেন, ‘নির্বাচন সামনে রেখে সুসংগঠিত, ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগ গড়ে তুলতে চাই। আগামীতে সরকার পরিচালনার জন্য আমরা প্রস্তুত। সভাপতি আমাদের অপরিহার্য। যিনি (শেখ হাসিনা) সভাপতি তিনি আমাদের ঐক্যের প্রতীক। এ মতের ভিন্ন একজন কাউন্সিলরও খুঁজে পাওয়া যাবে না। এ নিয়ে কোনো প্রশ্ন নেই।’

দলের সাধারণ সম্পাদক পদে পরিবর্তন আসতে পারে কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘আমার জানা মতে দলে সেক্রেটারি হওয়ার মতো অন্তত ১০ জন অভিজ্ঞ নেতা আছেন। কে হবেন, সেটা নেত্রীর ইচ্ছা এবং কাউন্সিলরদের মতামত। সবকিছুর প্রতিফলন ঘটবে সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশ নির্মাণ করেছি। এখন আমাদের লক্ষ্য স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তোলা। ২০৪১ সাল পর্যন্ত সমৃদ্ধ ও স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে কাজ করবে আওয়ামী লীগ। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে। মুক্তিযু্দ্ধের চেতনায় অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ে তুলতে আমরা অঙ্গীকারবদ্ধ। সেই লক্ষ্যে আমরা কাজ করে যাবো। আমাদের মূল লক্ষ্য উন্নত, সমৃদ্ধ স্মার্ট বাংলাদেশ।

এসময় আওয়ামী লীগ সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সবুর, কার্যনির্বাহী সদস্য অ্যাডভোকেট সানজিদা খানম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।