নকলায় ওসি’র সহযোগিতায় প্রতিবন্ধী আলিফ ফিরে পেলে তার মাকে

34

স্টাফ রিপোর্টার: পাঁচ বছরের শিশু প্রতিবন্ধী আলিফ মিয়াকে উদ্ধার করে তার মায়ের হাসিকে ফিরিয়ে দিলেন শেরপুরের নকলা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মুশফিকুর রহমান। শনিবার (১৪ আগস্ট) রাতে নকলা পৌরসভাধীন মমিনাকান্দা এলাকা থেকে ওই শিশুকে উদ্ধার করে তার মা পারভীন বেগমের কোলে ফিরিয়ে দেন থানা পুলিশ।

নকলা থানা সূত্রে জানাযায়, প্রতিবন্ধী শিশু আলিফ মিয়াকে নিয়ে ঢাকায় বিভিন্ন বাসায় কাজ করতেন তার মা পারভীন বেগম। প্রায় ২০/২৫ দিন আগে শিশুটির বাবা সোহেল মিয়া চুরি করে নিয়ে আসে আলিফকে। সন্তানকে হারিয়ে দিশেহারা হয়ে পড়ে মা পারভীন বেগম। অনেক খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে অবশেষে নকলা থানার ওসি মো. মুশফিকুর রহমানের সহযোগিতা চেয়ে আবেদন করে সন্তানহারা মা পারভীন বেগম। এদিকে সোহেল মিয়া আলিফকে বিভিন্ন জায়গাতে সরিয়ে রেখে এবং সন্তানের কথা অস্বীকার করে। পরে শনিবার রাতে নকলা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবু বক্কার সিদ্দীক সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে মমিনাকান্দা এলাকায় সোহেল মিয়ার নিজ বাড়ী থেকে আলিফকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। খবর পেয়ে পারভীন বেগম ছুঁটে আসে থানায়। শিশু আলিফকে পেয়ে আনন্দে আত্মহারা হয়ে জড়িয়ে ধরে কেঁদে ফেলে মা পারভীন বেগম। সমাজের কাছে বুঝা হলেও মার কাছে প্রতিবন্ধী শিশু কোন বুঝা না তা যেন আবারও প্রমান করল পারভীন বেগম। খবরটি মূহুর্তের মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে বিভিন্ন মহল ওসিকে অভিনন্দন জানানো শুরু করে।

নকলা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মুশফিকুর রহমান যায়যায়দিনকে জানান, আমি ঘটনাটি যখন জানতে পারি তাৎক্ষনিক নির্দেশ দেই শিশুটিকে উদ্ধার করার জন্য। একজন মায়ের সন্তান হারানোর আর্তনাদ আমার মনেও দাগ কাটিয়েছে। আলিফকে উদ্ধার করে তার মায়ের কাছে ফিরিয়ে দিতে পেরে আমিও অনেক স্বস্তি পেয়েছি। আমরা পুলিশ কাজ করি দেশে ও মানুষের জন্য। পুলিশী সেবা জনগনের দ্বারপ্রান্তে পৌছে দেওয়াটাই হল আমাদের লক্ষ্য। সকলের সহযোগিতা পেলে আমাদের কাজকে আরো ত্বরান্বিত করতে পারব। ফিরে আসবে কাজের গতি।