15.5 C
Sherpur
শনিবার, জানুয়ারি ১৬, ২০২১
বাড়ি শেরপুর জেলা শেরপুর সদর শেরপুরে সাত মাস বয়সের শিশুর মাথার পেছনে দুই কেজি টিউমার, টাকার অভাবে...

শেরপুরে সাত মাস বয়সের শিশুর মাথার পেছনে দুই কেজি টিউমার, টাকার অভাবে করতে পারছেনা চিকিৎসা

8

শেরপুর সদর উপজেলার লছমনপুর ইউনিয়নের তালুকপাড়া গ্রামে গত সাত মাস আগে রিক্সাচালক আব্দুল জলিলের ঘরে কপালের লিখন মাথার পিছনে ছোট একটি টিউমার নিয়ে জন্ম নিয়েই দুনিয়াতে আসে শিশু মাবিয়া। এরপর থেকেই দুঃখ যেনো ঘর বাঁধে রিক্সাচালক জলিল-শাবানা দম্পতির ঘরে।

জন্মের সময় টিউমারটি একেবারেই ছোট ছিলো। মাবিয়া বেড়ে উঠার সাথে সাথে টিউমারটিও বেড়ে উঠে। এখন মাবিয়ার বয়স সাত মাস। টিউমারটির ওজনও এখন প্রায় দুই কেজি। ছোট্ট শিশুর চিকিৎসা করাতে এখনো হিমশিম খাচ্ছে দরিদ্র পরিবারটি। একসময় এলাকাবাসী সহযোগিতায় প্রাথমিক চিকিৎসা করালেও টাকার অভাবে এখন বন্ধ চিকিৎসা। দুঃসহ যন্ত্রণা আর আর্তচিৎকার নিয়ে বেঁচে আছে শিশুটি। এজন্য সরকারের কাছে চিকিৎসার সহযোগিতা চেয়েছেন শিশুটির অসহায় পরিবার।

স্থানীয়রা কিছু টাকা সংগ্রহ করে চিকিৎসা করালেও এখন টাকার অভাবে চিকিৎসা বন্ধ মাবিয়ার। এজন্য সরকার ও বৃত্তবানদের সহযোগিতা চেয়েছেন তাঁরা। সহযোগিতা পেলে সুস্থ হবে ছোট্ট মাবিয়া এই বলে দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

আর উন্নত চিকিৎসা করালে সুস্থ হতে পারে ছোট্ট শিশু মাবিয়া; বলছেন ডা. মাহমুদুল হাসান, সহকারি অধ্যাপক, ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল।

আব্দুল জলিল ঢাকায় রিক্সা চালায়। তাঁর ঘরে দুই ছেলে ও দুই মেয়ের মধ্যে মাবিয়া সবার ছোট। সম্প্রতি শিশুটির টিউমারসহ একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে আর্থিক সহায়তাও প্রদান করে শেরপুর জেলা প্রশাসন।