নকলার প্রবীণ শিক্ষক ফজলুল হকের যানাজা নামাজে মানুষের ঢল

11

শেরপুর প্রতিনিধি:শেরপুর জেলার নকলা উপজেলার প্রবীণ শিক্ষক আলহাজ মাওলানা মো. ফজলুল হকের যানাজা নামাজে অগণিত মানুষের উপস্থিতি ছিলো। ১৬ ডিসেম্বর বুধবার সকাল সোয়া ১১টার সময় স্থানীয় এক চালকল মিল মাঠে মরহুমের যানাজা অনুষ্ঠিত হয়। পরে সামাজিক কবরস্থানে মরদেহ দাফন করা হয়।

যানাজা নামাজের আগে মরহুমের কৃতকর্মের ওপর সংক্ষিপ্ত আলোকপাত করেন- মোবাইল কনফারেন্সের মাধ্যমে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বোর্ড ঢাকার সাবেক চেয়ারম্যান বানেশ্বরদী ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা পরিচালনা পরিষদের (এমএমসি) সভাপতি প্রফেসর তাসলিমা খাতুন এবং সরাসরি উপস্থিত হয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান শাহ মো. বোরহান উদ্দিন, ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সারোয়ার আলম তালুকদার, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র হাফিজুর রহমান লিটন, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ.কে.এম মাহবুবুল আলম সোহাগ, দপ্তর সম্পাদক মো. খলিলুর রহমান, বিজ্ঞান-প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ও বানেশ্বরদী ইউপির চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মাজহারুল আনোয়ার মহব্বত, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক ও বানেশ্বরদী ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার মাওলানা মো. শহিদুল ইসলাম, মাদ্রসার শিক্ষক কাজিমদ্দিন, মমিনাকান্দা আল-অমিন দাখিল মাদ্রাসার সুপার মাওলানা মোহাম্মদ হযরত আলী, আহলে হাদীস কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব নূর ইসলাম, মরহুমের বড় ছেলে জাহাঙ্গীর হোসেনসহ অনেকে।

যানাজা নামাজ পড়ান মরহুমের ভাতিজা মাওলানা মো. লূৎফর রহমান। এ যানাজা নামাজে বানেশ্বরদী ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক, এমএমসি’র সদস্যবৃন্দ, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকসহ বিভিন্ন পেশা শ্রেণীর হাজারো মুসলিম জনগন অংশ গ্রহন করেন। তাঁরা সকলেই এ মৃত্যুতে শোক প্রকাশের পাশাপাশি মরহুমের শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন।

উল্লেখ্য, প্রবীণ শিক্ষক আলহাজ মাওলানা মো. ফজলুল হক ১৫ ডিসেম্বর মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টা ৪০ মিনিটের সময় বার্ধক্য জনিত কারনে নিজ বাড়িতে ইন্তেকাল করেছিলেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিলো ৬৯ বছর ৩ মাস ১৫ দিন। তিনি স্ত্রী, ৩ ছেলে ও নাতি-নাতনিসহ অনেক গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।