জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল রক্ষায় তৎপর নকলা পৌর কর্তৃপক্ষ !!

5

শেরপুর প্রতিনিধি : কুষ্টিয়ার বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্মাণাধীন ভাস্কর্য ভাঙচুরের ঘটনার পর জাতির জনকের ভাস্কর্য ও ম্যুরাল রক্ষায় তৎপর হয়েছেন শেরপুর জেলার নকলা উপজেলার নকলা পৌর কর্তৃপক্ষ।

তৎপরতার অংশ হিসেবে পৌরসভার গড়ের গাঁও চৌরাস্তা মোড়ে নির্মিত বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বিশাল এক ম্যুরাল রক্ষায় বসানো হলো তিনটি অত্যাধুনিক সিসি ক্যামেরা।

এবিষয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র হাফিজুর রহমান লিটন জানান, যে বীর পুরুষের জন্ম না হলে আমরা স্বাধীনতা পেতাম না, পেতাম না জাতীয় পতাকা, থাকতো না কোন সার্বভৌমত্ব, বিশ্ব মানচিত্রে থাকতো না বাংলাদেশ নামের কোন ভূখন্ড। এমন জাতির জনকের ভাস্কর্য ভাঙচুরের মতো ঘটনা যারা ঘটাতে পারে তারা নিঃসন্দেহে স্বাধীনতার বিপক্ষের শক্তি। তাই ভাস্কর্য ভাঙচুরের সাথে জড়িতদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে বিচার কাজ শুরু করা হউক। তাছাড়া এর পিছনে কোন ধরনের অপশক্তি কাজ করছে তা খতিয়ে দেখে তদন্ত পূর্বক তাদেরকেও আইনের আওতায় আনার দাবী জানান তিনি।

উল্লেখ্য, কুষ্টিয়ায় জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমানের নির্মাণাধীন ভাস্কর্য ভাঙচুরের ঘটনার প্রতিবাদে সারা দেশে বিক্ষোভ মিছিল সমাবেশ অব্যাহত রয়েছে। গতকাল রবিবার রাজধানীসহ সারা দেশ ছিল প্রতিবাদমুখর। বিভিন্ন প্রতিবাদ সভায় বক্তারা বলছেন, স্বাধীনতার পরাজিত শক্তি, সাম্প্রদায়িক, উগ্র মৌলবাদী গোষ্ঠী বিএনপি-জামায়াতের ইন্ধনে এ ঘটনা ঘটিয়েছে। বক্তারা এ ন্যাক্কার জনক হীনমন্যতার ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে জড়িতদের শাস্তির দাবি জানিয়েছে।

ঢাকায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য স্থাপনকে কেন্দ্র করে হেফাজতে ইসলামসহ কয়েকটি ধর্মভিত্তিক সংগঠনের বিরোধিতা করে আসছিল। এর মধ্যে গত বুধবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যানটিনের সামনে স্থাপিত ‘মধুসূদন দে’র ভাস্কর্য ভাঙার পর কুষ্টিয়ায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙার ঘটনা ঘটে। পরে কুষ্টিয়ায় জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমানের নির্মাণাধীন একটি ভাস্কর্য ভাঙচুর করে দুর্বৃত্তরা।

গত শুক্রবার রাতের কোনো একসময় কুষ্টিয়া পৌরসভার পাঁচ রাস্তার মোড়ে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের ডান হাত, পুরো মুখ ও বাম হাতের অংশবিশেষ ভেঙে ফেলা হয়। পরদিন শনিবার সকালে তা এলাকাবাসীর নজরে আসে। এরপর থেকে প্রতিবাদে ফুঁসে ওঠে সারা দেশের স্বাধীনতার পক্ষের জনগন। গতকাল রবিবার এ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

কুষ্টিয়ায় রাতের অন্ধকারে বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্মাণাধীন ভাস্কর্য ভাঙার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন। এ বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ থেকে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙার ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তার করে বিচার ও শাস্তির দাবি করা হয়। এসব সংগঠনের মধ্যে আওয়ামী লীগ ছাড়াও রয়েছে যুবলীগ, জাতীয় শ্রমিক লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, কৃষক লীগ, মৎস্যজীবী লীগ, ছাত্রলীগ।