ঝিনাইগাতীতে বাল্যবিয়ে পরানোর অভিযোগে নিকাহ রেজিস্টারের অর্থদন্ড 

26
ঝিনাইগাতী সংবাদদাতা: ঝিনাইগাতীতে বাল্যবিয়ে পরানোর অভিযোগে উপজেলার হাতিবান্দা ইউনিয়ন  নিকাহ রেজিস্টার জাহাঙ্গীর আলমকে ৫০হাজার টাকা অর্থদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। ৮ অক্টোবর বৃহস্প্রতিবার বিকালে ঝিনাইগাতী উপজেলা নির্বাহী অফিসার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রুবেল মাহমুদ  এ অর্থদন্ড আদায় করেন।
হাতিবান্দা  ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নুরুল আমিন দোলা জানান,৭ অক্টোবর বুধবার রাতে পাগলারপাড় গ্রামের  আঃ রহিমের কন্যা  স্হানীয় আদর্শ স্কুলের নবম শ্রেনীর শিক্ষার্থী রীতি আক্তার (১৩)’র বিবাহ দেয় শেরপুর সদর উপজেলার কালিগজ্ঞ  দমদমা মহল্লার জনৈক মোরাদের সাথে।  এ বিবাহ রেজিষ্টি করান ওই ইউনিয়নের নিকাহ রেজিস্টার জাহাঙ্গীর আলম। বাল্যবিয়ের খবর পেয়ে ওই  রাতেই  উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুবেল মাহমুদ ও সহকারি কমিশনার  (ভূমি) জয়নাল আবেদীন  বাল্যবিয়েটি বন্ধ করতে  আঃ রহিমের বাড়িতে যান।
এ সময়  নির্বাহী অফিসারের উপস্হিতি  বুঝতে  পেরে  বর যাত্রী ও নিকাহ  রেজিস্টার  দৌড়ে পালিয়ে  যায়।  পরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুবেল মাহমুদ কনের অভিভাবকের কাছ  মেয়ে প্রাপ্ত বয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত বিবাহ দেয়া  যাবে না মর্মে মুচলেকা  নেন। পরে  বৃহস্প্রতিবার  বিকালে স্হানীয় জনপ্রতিনিধিদের  মাধ্যমে নিকাহ রেজিস্টার জাহাঙ্গীর আলমকে ডেকে এনে বাল্যবিয়ে  পড়ানোর অভিযোগে তার কাছ থেকে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে  ৫০ হাজার টাকা  অর্থ দন্ড  দেয়া হয়।