নকলা ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহ বন্ধ, ২৫ হাজার টাকা জরিমানা

40

মো. মোশারফ হোসাইন: শেরপুর জেলার নকলা উপজেলায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) জাহিদুর রহমানের হস্তক্ষেপে এক বাল্যবিবাহ বন্ধ করা হয়েছে এবং বাল্যবিবাহ নিরোধ আইনে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে কনে ও বরের অভিভাবককে মোট ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ইউএনও জাহিদুর রহমান। এতে বাল্যবিবাহ থেকে রক্ষা পেয়েছে ১৪ বছর বয়সী দাখিল মাদ্রাসায় পড়ুয়া ৭ম শ্রেণির এক মেধাবী শিক্ষার্থী।

৭ আগস্ট শুক্রবার সন্ধ্যায় এক গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নকলা পৌরসভার চরকৈয়া এলাকায় এ বিবাহ বন্ধ ও অর্থদন্ড করা হয়। বাল্যবিবাহ থেকে রক্ষা পাওয়া শিক্ষার্থী নকলা উপজেলার বানেশ্বরদী ইউনিয়নের বানেশ্বরদী ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার ৭ম শ্রেণির মেধাবী শিক্ষার্থী ও নকলা পৌরসভার চরকৈয়া এলাকার শানু মিয়ার মেয়ে।

বাল্যবিবাহ নিরোধ আইনে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চালিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ইউএনও জাহিদুর রহমান কনের অভিভাবক ও কনের বড় ভাই স্বর্ণবালীকে ২০ হাজার টাকা এবং বরের অভিভাবক ও বরের নানা ফয়েজুর রহমানকে ৫ হাজার টাকাসহ মোট ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করে। সেই সাথে মেয়ে প্রাপ্ত বয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দিবেন না মর্মে কনে ও বরের অভিভাবকদের কাছ থেকে মুচলেকা নেয়া হয়। এসময় উভয় পক্ষ ভ্রাম্যমাণ আদালতে দণ্ডিত অর্থ তাৎক্ষণিক পরিশোধ করেন।