শেরপুর প্রতিদিন ডট কম

Home রাজনীতি বিএনপি দেশে অনির্বাচিত সরকার প্রতিষ্ঠিত করতে চায়
বিএনপি দেশে অনির্বাচিত সরকার প্রতিষ্ঠিত করতে চায়

বিএনপি দেশে অনির্বাচিত সরকার প্রতিষ্ঠিত করতে চায়

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেছেন, ষড়যন্ত্র চলছে দেশের বিরুদ্ধে, রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে। শেখা হাসিনা বেঁচে থাকলে স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বকে ধ্বংস করা যাবে না, তাই তারা শেখ হাসিনাকে হত্যা করতে চায়। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের মাধ্যমে বিএনপি আবার দেশে অনির্বাচিত সরকার প্রতিষ্ঠিত করতে চায়। বিএনপি চায় না নির্বাচন হোক।

শনিবার (১৭জুন) বিকেলে শ্যামপুর শিল্প এলাকা (গাজী ট্যাংক ফ্যাক্টরির সামনে) ঢাকা মহানগর দক্ষিণের অন্তর্গত ঢাকা-৪ সংসদীয় আসনের (শ্যামপুর-কদমতলী থানা) ৭টি ওয়ার্ডের ইউনিটসমূহের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

 

তিনি বলেন, আজকে গভীর ষড়যন্ত্র চলছে। একাত্তরে যেমন সমস্ত পেশার মানুষ ঐক্যবদ্ধ হয়েছিলাম, এখন সময় এসেছে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সেভাবে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার। বাংলাদেশ স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্র। কারও অনুগ্রহে আমরা স্বাধীন হইনি।

কামরুল ইসলাম বলেন, আমাদের সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে। তত্ত্বাবধায়ক সরকার আর বাংলাদেশের মাটিতে হবে না। শেখ হাসিনার নির্বাচনকালীন সরকারের নেতৃত্বে নির্বাচন হবে যেখানে নির্বাচন কমিশনের ওপর সরকার কোনো হস্তক্ষেপ করবে না। আগামী নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ না করলে তাদেরই কবর রচনা হবে। কোনো অবস্থাতেই নির্বাচন বন্ধ হবে না। সংবিধান অনুযায়ী সঠিক সময়ে নির্বাচন হবে। জাতীয় নির্বাচনে জনগণ শেখ হাসিনার পক্ষেই রায় দেবে।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনার শক্তি তরুণ সমাজ, যুব সমাজ। তরুণ সমাজ শক্তিশালী হলে শেখ হাসিনা শক্তিশালী হবে, বাংলাদেশ শক্তিশালী হবে। বিএনপি জামায়াত তরুণদের নিয়ে সমাবেশের নামে কী করছে? চট্টগ্রামে তরুণদের নিয়ে সমাবেশের নামে জাতির পিতার প্রতিকৃতি ভেঙে দিয়েছে এটা অসচেতনতায় নয়।

 

তিনি বলেন, সিরাজগঞ্জে মির্জা ফখরুল ইসলামের সমাবেশে বিএনপির এক নেতা বলেছেন, আমাদের সংগ্রাম আমাদের লক্ষ্যই হলো শেখ হাসিনাকে হত্যা করা। তাদের লক্ষ্যই একটা, শেখ হাসিনাকে হত্যা করা। মির্জা ফখরুলরা বিদেশিদের তাবেদারি করছে। শেখ হাসিনাকে হত্যা করে তারা ৭৫ এ যেমন করেছিলেন তেমন একই কায়দায় আবার বঙ্গবন্ধু কন্যাকে হত্যা করতে চায়।

ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন উদ্বোধন করেন আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস্ পরশ। ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণের সহ-সভাপতি সৈয়দ আহমেদ সভাপতিত্বে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মাইনুল হোসেন খান নিখিল, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য ও ঢাকা-৪ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট সানজিদা খানম, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু আহমেদ মন্নাফী।

সঞ্চালনা করেন ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এইচ এম রেজাউল করিম রেজা।


LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

three × two =